Breaking News
Home / রোজা / রোজা কার উপর ফরজ? এ ফরজকে অস্বীকারকারী ও পরিত্যাগকারীর হুকুম কি?

রোজা কার উপর ফরজ? এ ফরজকে অস্বীকারকারী ও পরিত্যাগকারীর হুকুম কি?

ইসলামের রোকনসমূহের মধ্যে একটি রোকন হলো পবিত্র রমজান মাসের রোজা, যা প্রত্যেক মুকাল্লাফ (যাদের উপর শরীয়তের হুকুম প্রযোজ্য)

মুসলমানের উপর অবশ্য পালনীয় ফরজ।  রোজা অস্বীকারকারী কাফেত এবং বিনা ওযরে পরিত্যাগকারী ফাসেক।

সহীহ বুখারী ও মুসলিম শরীফে বর্ণিত আছে,

হযরত আবু বকর সিদ্দিক (রাযি.)- নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে বর্ণনা করেন যে,

আদম সন্তানের প্রতিটি আমলের সওয়াব আল্লাহ তায়ালা সাত থেকে একশত গুন পর্যন্ত বৃদ্ধি করেন।

কিন্তু রোজা সম্পর্কে আল্লাহ তায়ালা বলেন, নিশ্চয়ই রোজা আমার জন্য এবং আমি নিজেই রোজার প্রতিদান দিব।

রোজা আদায় সহীহ হওয়ার জন্য শর্ত কি কি?

তা আদায় সহীহ হওয়ার জন্য নিয়ত করা এবং মহিলারা হায়েয ও নেফাস থেকে পবিত্র হওয়া শর্ত।

রোজা মোট কত প্রকার ও কি কি?

তা হল ছয় প্রকার-

১. রমজান মাসের রোজা,

২. ক্বাযা রোজা,

৩. নির্দিষ্ট মান্নাতের রোজা,

৪.অনির্দিষ্ট মান্নাতের রোজা,

৫. কাফফারার রোজা, ৬.

নফল রোজা

রোজার নিয়ত কিভাবে করতে হবে?

ইমাম আযম (রহ.) এর মতে সাধারণ নিয়ত, ফরজে ওয়াক্তের নিয়ত এবং নফল নিয়তের দ্বারা রমজান মাসের রোজা আদায় হয়ে যায়।

রমজান মাসে কেউ যদি ক্বাযা অথবা কাফফারার রোজার নিয়ত করে আর ঐ ব্যক্তি যদি সুস্থ ও মুকীম হয়,

তবে ঐ সময়ের ফরজ অর্থাৎ রমজান মাসের রোজাই আদায় হবে, অন্য রোজা আদায় হবেনা।

আর যদি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি রোগী অথবা মুসাফির হয়,

তাহলে সে ক্বাযা অথবা কাফফারা যে ধরণের রোজার নিয়ত করবে সেটিই আদায় হবে।

তবে সাহেবাইন (রহ.) এর মতে এমতবস্থায়ও (যদিও রোগী ও মুসাফির হয়) ফরজে ওয়াক্তের তথা রমজানের রোজাই আদায় হবে।

আর ইমাম মালেক, ইমাম শাফেয়ী ও ইমাম আহমদ (রহ.) এর মতে রমজানের রোজার জন্যো নির্দিষ্ট করে নিয়ত করা জরুরী।

 

About Admin

আমার নাম: এইচ.এম.জামাদিউল ইসলাম ঠিকানা: বালাগঞ্জ,সিলেট। আমি কওমি মাদ্রাসায় কোরাআনের খেদমত করতেছি, পাশাপাশি MuslimBD24.Com সাইটের প্রধান লেখক ও সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি। অনলাইন সম্পর্কে মোটামুটি জ্ঞান থাকায়, তাই সময় পেলে দ্বীন ইসলাম প্রচারের সার্থে ইসলামিক কিছু পোস্ট লেখালেখি করি। যাতে করে অনলাইনেও ইসলামিক জ্ঞান সম্পর্কে জ্ঞানহীন মানুষ, ইসলামিক জ্ঞান সহজে অর্জন করতে পারে। একজন মানুষ জন্মের পর থেকে মৃত্যু পর্যন্ত নিজের জীবনকে ইসলামের পথে চালাতে গেলে ইসলাম সম্পর্কে যে জ্ঞান অর্জন করার দরকার,ইনশা-আল্লাহ এই ওয়েব সাইটে মোটামুটি সেই জ্ঞান অর্জন করতে পারবে। যদি সব সময় সাইটের সাথে থাকে। আর এই সাইটটি হল একটি ইসলামিক ওয়েব সাইট । এ সাইটে শুধু ইসলামিক পোস্ট লেখালেখি হবে। আল্লাহ তায়ালার কাছে এই কামনা করি যে, আমরা সবাইকে বেশী বেশী করে ইসলামিক জ্ঞান শিখার ও শিখানোর তাওফিক দান করুন, আমিন।

Check Also

রোজা কখন ওয়াজিব হয়

রোজা কখন ওয়াজিব হয়

(মুসলিমবিডি২৪ ডটকম) রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেলে কিংবা শাবান মাসের ত্রিশ দিন পরিপূর্ণ হয়ে গেলে …

4 comments

  1. Continue to put up good content within your blog.

    You are able to build a reputation and build trust when using the people
    in your niche. Yet, if your website focuses on one particular product,
    service or curiosity. https://918kiss.host/downloads

  2. Some truly nice stuff on this website, I love
    it. https://androstackx.org/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »

Powered by themekiller.com