Home / ইসলাম ধর্ম / গুগল এডসেন্স থেকে উপার্জিত টাকা কি জায়েয

গুগল এডসেন্স থেকে উপার্জিত টাকা কি জায়েয

(মুসলিমবিডি২৪ডটকম)

গুগল এডসেন্স থেকে উপার্জিত টাকা কি জায়েজ

মূলত গুগল অ্যাডসেন্স (Google AdSense) হলো একটি অ্যাডভারটাইজিং মাধ্যম।

নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল,ফেসবুক বা ওয়েবসাইটে গুগল বরাবর অনলাইন দরখাস্ত করলে যদি তারা এক্সেপ্ট করে,

তাহলে চ্যানেলের উপর গুগল অ্যাড যুক্ত করে দেয়। এ অ্যাডগুলো কখনো হালাল হতে পারে আবাব হারাম ব্যবসার অথবা অশ্লীল নারীদের মাধ্যমে হয়ে থাকে।

নিজস্ব মনমত বাছাই করার অধিকার এডমিনের থাকে না।

অবশ্য অশ্লীল বা হারাম ক্যাটাগরি লক করা যায়। কিন্তু সে ক্ষেত্রেও,

১. সর্বোচ্চ ২০০ ক্যটাগরি লক করা যায়। এর বাহিরেও হারাম অ্যাড আসতে পারে।

২. আবার একেক দেশের ভিউয়ারদের জন্য একেক রকম অ্যাড চলে যায়।

ফলে অশ্লীল বা হারাম অ্যাড বন্ধ করা এডমিনের পক্ষে সম্ভবপর হয় না। ফলে এটা জায়েয হবে না।

সুতরাং অ্যাডগুলো যেহেতু অশ্লীল ও হারাম পণ্যের হয়েই থাকে,

সেহেতু অ্যাডসেন্সের মাধ্যমে উপার্জিত টাকা জায়েয হবে না। কেননা, গুনাহর প্রচার ও তার সহযোগিতা করা উভয়টিই হারাম। আল্লাহ তাআলা বলেন,

وَتَعَاوَنُوا عَلَى الْبِرِّ وَالتَّقْوَى وَلَا تَعَاوَنُوا عَلَى الْإِثْمِ وَالْعُدْوَانِ وَاتَّقُواْ اللّهَ إِنَّ اللّهَ شَدِيدُ الْعِقَابِ

অর্থ: তোমরা সৎকর্ম ও আল্লাহভীতিতে একে অন্যের সহযোগিতা করো,

গুনাহ ও জুলুমের কাজে একে অন্যের সহায়তা করো না।

আল্লাহকে ভয় কর। নিশ্চয় আল্লাহ তা’আলা কঠোর শাস্তিদাতা। (সূরা মায়েদা ২)

অপর আয়াতে আল্লাহ তা’য়ালা বলেন,

إِنَّ الَّذِينَ يُحِبُّونَ أَن تَشِيعَ الْفَاحِشَةُ فِي الَّذِينَ آمَنُوا لَهُمْ عَذَابٌ أَلِيمٌ فِي الدُّنْيَا وَالْآخِرَةِ وَاللَّهُ يَعْلَمُ وَأَنتُمْ لَا تَعْلَمُونَ

অর্থ: যারা পছন্দ করে যে, ঈমানদারদের মধ্যে ব্যভিচার প্রসার লাভ করুক,

তাদের জন্যে ইহাকাল ও পরকালে যন্ত্রণাদায়ক শাস্তি রয়েছে। আল্লাহ জানেন, তোমরা জান না। (সুরা নুর, আয়াত: ১৯)

উপরন্তু রাসূলুল্লাহ স: বলেছেন,

عن أبي هريرة قال قال رسول الله صلي الله عليه وسلم مَن دَعا إلى هُدًى، كانَ له مِنَ الأجْرِ مِثْلُ أُجُورِ مَن تَبِعَهُ، لا يَنْقُصُ ذلكَ مِن أُجُورِهِمْ شيئًا

، ومَن دَعا إلى ضَلالَةٍ، كانَ عليه مِنَ الإثْمِ مِثْلُ آثامِ مَن تَبِعَهُ، لا يَنْقُصُ ذلكَ مِن آثامِهِمْ شيئًا

অর্থ: হযরত আবু হুরায়রা রা: বলেন, রসুলুল্লাহ স: বলেছেন, যে লোক সঠিক পথের দিকে ডাকে,

তার জন্য সে পথের অনুসারীদের প্রতিদানের সমান প্রতিদান রয়েছে। এতে তাদের প্রতিদান হতে সামান্য ঘাটতি হবে না।

আর যে লোক গুনাহর দিকে ডাকে তার উপর সে রাস্তার অনুসারীদের গুনাহর অনুরূপ গুনাহ বর্তাবে।

এতে তাদের গুনাহগুলো সামান্য হালকা হবে না।সূত্র: সহিহ মুসলিম হাদিস-২৬৭৪ আবু দাউদ-৪৬০৯

ইবনে হিব্বান-১১২ তিরমিযি-২৬৭৪ ইবনে মাজাহ-২০৬ আহমাদ-৯১৬০

অবশ্য পরবর্তি সময়ে যদি কখনও অনৈসলামিক সকল অ্যাডগুলো বন্ধ রেখে বৈধ অ্যাডগুলো প্রচার করে ইনকাম করতে পারে, তাহলে তা থেকে প্রাপ্ত ইনকাম হালাল হবে।

লেখক:

মুফতী রিজওয়ান রফিকী পরিচালক: মাদরাসা মারকাযুন নূর বোর্ড বাজার, গাজীপুর।

About নঙ্গে আসলাফ আফজাল

নঙ্গে আসলাফ আফজাল ১৯৯৫ সালের ১৪ ই এপ্রিল মাসে জন্মগ্রহণ করেন।২০১২ হিফজ সম্পন্ন করেন মাদ্রাসা দাওয়াতুল হক দেওনা,গাজীপুর, ঢাকা থেকে। উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন২০১৬ সনে ইসলামাবাদ মাদ্রাসা বি-বাড়িয়া থেকে। দাওরায়ে হাদিস (মাস্টার্স)সম্পন্ন করেন ২০২০ সনে শাহ সুলতান রহঃ মাদ্রাসা সিলেট থেকে।তিনি লেখা-লেখিতে অভ্যস্ত, বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় তার লিখা প্রকাশ করা হয়েছে। Muslimbd24.com এ তার দৈনিক ইসলামী নিউজ সহ বিভিন্ন লিখা প্রকাশিত হয়। ঠিকানা: বালাগঞ্জ, সিলেট। মোবাইল নাম্বার:০১৭১৪৪৭৫৭৪৫ ইমেইল: hafijafjal601@gmail.com ইউটিউব চ্যানেলঃ https://www.youtube.com/channel/UCocSpOf_nj57ERq1QorZA6A

Check Also

কুরবানী ফযীলত ও তার জরুরি মাসায়েল

কুরবানীর ফযীলত ও তার জরুরি মাসায়েল

(মুসলিম বিডি ২৪.কম)  بسم الله الرحمن الرحيم কুরবানীর ফযীলত রাসুলে পাক (সা.) ইরশাদ করেন, কুরবানীর …

3 comments

  1. thanks sir very helpful articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by

Hosted By ShareWebHost