Home / বিশ্লেষণ ও গবেষণামূলক / নারীর প্রতি সহিংসতার ভয়াবহতা

নারীর প্রতি সহিংসতার ভয়াবহতা

(মুসলিম বিডি২৪.কম)

নারীর প্রতি সহিংসতার ভয়াবহতা

بسم الله الرحمن الرحيم

আমরা কি শেষ হয়ে যাচ্ছি?

বিবেক-এখনও যাদের  বিবেক ধুঁকে ধুঁকে বেঁচে আছে -সামাজের কাছে  বিবেকের আজ বড় একটা জ্বলন্ত প্রশ্ন!

আইয়ামে জাহিলিয়াত থেকে আমরা আর কতটা দূরে আছি কিংবা  সত্য কি এই যে অনেক আগে আমরা জাহিলিয়াতের সীমানা ছাড়িয়ে গিয়েছি?

বার বার একের পর এক ছোট থেকে নিয়ে মধ্য বয়সী মেয়েরা এমনকি বিবাহিতা স্ত্রী যৌননিপীড়নের শিকার হচ্ছে।

এবং শেষপর্যন্ত কেউ অত্যন্ত করুণভাবে মৃত্যুর শিকার হচ্ছে আবার কেউ মৃতের মতো বেঁচে আছে এসব কিছু  সমাজের রুগ্ন বিবেককে।

কিছু সময়ের জন্য হলেও নাড়া দিয়েছে একটি দৈনিকের  থেকে অন্তত তাই ধারণা করা যায়।

বস্তুত যৌননির্যাতন ও নারীর প্রতি সহিংসতা এখন সারা বিশ্বে এবং প্রতিটি সভ্যসমাজে আশঙ্কাজনকরূপে বেড়ে গিয়েছে।

নারী ও শিশু এখন পৃথিবীর কোন দেশে কোন সমাজে কোন প্রতিষ্ঠানে, এমনকি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও নিরাপদ নয়।

সভ্যতাদর্পী পাশ্চাত্যের সমাজেও শিক্ষা ও স্বাধীনতার আবরণে নারী আজ বিভিন্নভাবে লাঞ্চনা যৌননিপীড়ন ও সহিংসতার শিকার ।

অক্সফোর্ড ও কেমব্রিজেবিশ্ববিদ্যলয়ের মত বিশ্ববিখ্যাত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর পর্যন্ত ভয়াবহ চিত্র উঠে আসছে বিভিন্ন জরিপে।

যুক্তরাষ্ট্রসহ ইউরোপ বিভিন্ন দেশের চিত্র ভয়াবহ হলিউড-বলিউড তো বিনোদনের জগৎ  সব হারাম যেখানে হালাল।

পরিস্থিতি কতটা ভয়াবহ হলে সেখানেও এখন শুরু হয়েছে প্রতিবাদের বিস্ফোরণ।

তৃতীয় বিশ্বে বিশেষত বাংলাদেশ ব্যাপক যৌননিপীড়নের সঙ্গে যে উপসর্গটা ভয়াবহ   আকারে যুক্ত হয়েছে সেটা হলো সহিংসতা।

আমাদের দেশে সাধারণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর ভিতরে তো যৌনতার পচন ধরেছে অনেক আগেই এখন সরকার বেসরকারি।

ধর্মীয়  প্রতিষ্ঠানগুলোতেও দুঃখজনকভাবে পচনের সংক্রমণ ঘটেছে এবং সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে আধুনিকায়নের নামে।

যেভাবে পর্দার শিথিলতা ঘটানো হয়েছে সেই সঙ্গে নোংরা রাজনীতির প্রাদুর্ভাব তাতে এ ধরনের পচন ছিলো অবধারিত।

প্রতিবাদ ও সহিংসতা সামান্য একটু মুখোশ উন্মোচন করছে মাত্র ভিতরে প্রকৃত চিত্র কি তা বোঝার জন্য খুব বেশি বুদ্ধিমান হওয়ার প্রয়োজন নেই।

প্রশ্ন হলো এ ভয়াবহ পরিস্থিতি থেকে সমাজের বাঁচার উপায় কী? জাতির চিন্তাশীল অংশ এবং আলেম সমাজ সবসময় বলে আসছেন।

কোন সমস্যা ও অবক্ষয়কে বিচ্ছিন্ন ভাবে চিন্তা করে সমাধান বের করা সম্ভব নয় তাতে বরং নতুন নতুন সমস্যা ও উপসর্গ দেখা দেবে শুধু।

সামগ্রিক অবক্ষয় রোধ করার জন্য শিক্ষাব্যবস্থায় ধর্মীয় মূল্যবোধ জাগ্রত করার কোন বিকল্প নেই পর্দা ও সামাজিক শালীনতা।

এবং পারিবারিক অনুশাসন নতুন করে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা অবশ্যই নিতে হবে মানুষের মধ্যে বিবেক ও মানুষত্ব,

জাগ্রত করার একমাত্র উপায় হলো শিক্ষার সঙ্গে দীক্ষা যাকে বলা হয় তালিম ও তারবিয়াত উভয়ের মধ্যে সমন্বয় সাধন করা।

পরিশেষে বলতে চাই

প্রতিটা সহিংসতার দৃষ্টান্তমূলক বিচার হতেই হবে বিচারহীনতা আসলে অপরাধের প্রতি প্রশ্রয়েরই নামান্তর কোন অপরাধী কোন পরিচয়েই যেন,

আইনের আওতা থেকে বের হতে না পারে সেটা অবশ্য নিশ্চিত করতে হবে।

About saifur rahman

আমি হাফিজ মোঃ সাইফুর রহমান হিফয সম্পন্ন করেছি উমুরপুর বাজার টাইটেল মাদ্রাসা থেকে। বর্তমানে জামেয়া গহরপুরে অধ্যায়নরত আছি। আমার থানা বালাগঞ্জ জেলা সিলেট।

Check Also

অন্যায়ভাবে কাউকে হত্যা করা মহাপাপ

অন্যায়ভাবে কাউকে হত্যা করা মহাপাপ

(মুসলিমবিডি২৪ডটকম) ‘আর যে ব্যক্তি স্বেচ্ছায় কোন মুমিনকে হত্যা করে তার শাস্তি জাহান্নাম। যাতে সে দীর্ঘকাল …

Leave a Reply

Powered by

Hosted By ShareWebHost