Breaking News
Home / কুরবানী / তাকবীরে তাশরীক কখন পড়া ওয়াজিব

তাকবীরে তাশরীক কখন পড়া ওয়াজিব

(MuslimBD24.com)

তাকবিরে তাসরিক কখন পড়া ওয়াজিব

তাকবিরে তাশরিক

 اَللهُ اَكْبَر اَللهُ اَكْبَر,لَا اِلَهَ اِلَّا اللهُ وَ اَللهُ اَكْبَراَللهُ اَكْبَر وَ للهِ الْحَمْد

 উচ্চারণ ু আকবার আল্লাহু আকবার, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার,আল্লাহু আকবার ওয়া লিল্লাহিল হামদ।

আসসালামু আলাইকুম

সকলে বিশেষ ভাবে মনে রাখবেন আগামী বুধবার ২৮শে জুন 2023 (৯ই জিলহজ্জ অর্থাৎ  ঈদের আগের দিন)

ফজর থেকে ২ই জুলাই 2023 (১৩ই জিলহজ্জ ) রবিবার আসর পর্যন্ত পাঁচ ওয়াক্ত  নামাজে সালাম ফেরানোর পর

(একা অথবা সহ যেভাবেই হোক) এই “তাকবিরে-তাশরিক”আওয়জ করে পড়বেন।

একবার পড়া ওয়াজিব তিনবার পড়া  উত্তম, সুন্নাত নয়। মহিলারা এই “তাকবিরে-তাশরিক”

মনে মনে পড়বেন ক্ষেত্রে আওয়াজ করে জায়েজ নয়।

বিশেষভাবে মনে রাখবেন, জিলহজ্জ চাঁদের শুরু থেকে জিকির হিসেবে এই তাকবীরে তাশরিক পড়ার কথা কিতাবে উল্লেখ আছে।

সুতরাং আপনি চাইলে এখন থেকে (যতটা সম্ভব) তকবিরে তাশরিক পড়া শুরু করতে পারেন ।

 

 তাকাবিরে তাশরিকের অর্থ

১.আল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার – আল্লাহ মহান আল্লাহ মহান।

 

২.লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার – আল্লাহ মহান আল্লাহ ছাড়া কোন (ইলাহা) মাবুদ নেই।

 

৩.আল্লাহু আকবার ওয়া লিল্লাহিল হামদ – আল্লাহ মহান সমস্ত প্রশংসা জন্য।

 

 তাকবীরে তাশরীকের ইতিহাস

হযরত ইবরাহীম (আলাইহিস সালাম) যখন নিজের প্রিয়পুত্র (হযরত) ইসমাঈল কে দেওয়ার জন্য মক্কার সাবীর নামক পাহাড়ের তলদেশে পৌঁছলেন,

অতঃপর তাঁর গলায় ছুরি চালাতে গেলেন, ঠিক সেই মুহূর্তে জিবরাঈল ( আমিন আলাইহিস সালাম) আসমান থেকে একটি দুম্বা নিয়ে হাযির হলেন,

এবং পিতা-পুত্রের কুরবানীর এই দৃশ্য দেখে বলে উঠে ছিলেন: আল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার।

জিবরাঈলের আওয়াজ শুনে ইবরাহীম (আলাইহিস সালাম) উত্তরে বলেছিলেন: লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহু, ওয়াল্লাহু আকবার।

অতঃপর ইসমাঈল আলাইহিস সালাম আসমানী দুম্বা দেখে আল্লাহর শুকরিয়া করে বলেছিলেন:আল্লাহু আকবার, ওয়ালিল্লাহিল হামদ।

এই বাক্যগুলি আল্লাহ তায়ালা এতটা পছন্দ করেছিলেন যে, তারপর থেকে যত নবী পৃথিবীতে এসেছিলেন

সকলকে এই তাকবীর পড়ার আদেশ দিয়েছিলেন এবং কুরবানী করতে বলেছিলেন।

অবশেষে সেই স্মৃতিকে বহাল রাখার জন্য আখিরী নবী মুহাম্মাদ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম)কে

এবং তাঁর উম্মতদেরকেও এই তাকবীর পড়ার নির্দেশ দিলেন। এটাই হল তাকবীরে তাশরীকের ইতিহাস।

 রেফারেন্স

সহীহ বুখারীর বিখ্যাত ব্যাখ্যাকার আল্লামা বদরুদ্দীন আইনী (রহঃ) এর লেখা ‘আল বিনায়াহ' কিতাবের তৃতীয় খণ্ডের ১৩০ পৃষ্ঠা।

 

তাকবীরে তাশরীক সহ জিলহজ্জ চাঁদের গুরুত্বপূর্ণ সাতটি আমল জা জন্য এই লিংকে ক্লিক করুন।জিলহজ্ব মাসের প্রথম দশ দিনের ফযীলতপূর্ণ কিছু আমাল



বিশেষ বিজ্ঞপ্তি

এ বিষয়ে আরও কিছু জানার থাকলে লেখকের সাথে যোগাযোগ করবেন+917872115887 WhatsApp

এবং সাইটে আপনার স্বরোচিত বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন প্রচার করতে যোগাযোগ +01303721460 WhatsApp

অথবা পরিচালক বরাবর ইমেইল করুন hafijafjal601@gmail.com

About আবদুল্লাহ আফজাল

হাফিজ মাওঃ মুহাম্মাদ আব্দুল্লাহ আফজাল। ২০১২ সনে হিফজ সম্পন্ন করেন। উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন২০১৬ সনে। দাওরায়ে হাদিস (মাস্টার্স) সম্পন্ন করেন ২০২০ সনে। ঠিকানা: বালাগঞ্জ, সিলেট। মোবাইল নাম্বার: 9696521460 ইমেইল:hafijafjal601@gmail.com সকল আপডেট পেতে এবং ওয়েবসাইটে লিখা পাঠাতে ফেসবুক পেজ?MD AFJALツ ফলো করুন।

Check Also

কোরবানির ফজিলত

কোরবানির ফজিলত

( মুসলিমবিডি২৪ডটকম) নির্ভরযোগ্য হাদিসের কিতাবাদি অধ্যায়ন করলে কোরবানির যে সমস্ত ফজিলত পাওয়া যায় তা হল:- …

Powered by

Hosted By ShareWebHost