Breaking News
Home / ইলমুল ক্বিরাত / রা অক্ষর পুর বারিক পড়ার আলোচনা

রা অক্ষর পুর বারিক পড়ার আলোচনা

(মুসলিমবিডি২৪ ডটকম)

রা অক্ষর পুর বারিক পড়ার আলোচনা

প্রশ্ন:- রা অক্ষরটি পড়িবার নিয়ম কয়টি ও কি কি?

উত্তর:- রা অক্ষর পড়িবার নিয়ম ২টি। (১) পুর (২) বারিক।

প্রশ্ন:- রা কোন সময় পুর করিয়া পড়িতে হয়?

উত্তর:- রা, ৭ অবস্থায় পুর করিয়া পড়িতে হয়।

(১) রা, এর উপর যবর হইলে পুর করিয়া পড়িতে হয়। যথা:- – رَفع

(২) রা, এর উপর পেশ হইলে পুর করিয়া পড়িতে হয়। যথা:- رُقود

(৩) রা, সাকিন তার আগের হরফে যবর হইলে পুর করিয়া পড়িতে হয়। যথা:- مَرْيم

(৪) রা, সাকিন তার আগের হরফে পেশ হইলে পুর করিয়া পড়িতে হয়। যথা:- اُرْكسو

(৫) রা, সাকিন তার আগের হরফে অস্থায়ী যের হইলে পুর করিয়া পড়িতে হয়। যথা:- من ارْتضي – اِنِ ارْتبتم

(৬) রা, সাকিন তার আগের হরফে যের হইলে এবং পরে ইস্তে,আলার ৭টি হরফ হইতে কোন একটি হরফ একই শব্দে আসিলে পুর করিয়া পড়িতে হয়।

যথা:- قِرْطاس – مِرْصاد

ইস্তে,আলার হরফ ৭টি এই:- خص ضغط قظ

(৭) রা, ওয়াক্বফ অবস্থায় সাকিন তার আগের অক্ষরে যবর বা পেশ হইলে পুর করিয়া পড়িতে হয় এবং রা, ওয়াক্বফ অবস্থায় সাকিন ও তার আগের অক্ষরও সাকিন,

এর আগের অক্ষরে যবর বা পেশ হইলে পুর করিয়া পড়িতে হয়। যথা:- ★انهَرُ★نُفُرُ★ قَدْرِ★صُدُوْرِ

প্রশ্ন:- রা, কোন সময় বারিক করিয়া পড়িতে হয়?

উত্তর:- ৫ অবস্থায় রা, বারিক করিয়া পড়িতে হয়।

(১) রা, এর নীচে যের হইলে বারিক করিয়া পড়িতে হয়। যথা:- رِجال

(২) রা, সাকিন তার আগের হরফে যের হইলে বারিক করিয়া পড়িতে হয়। যথা:-مِرْية

(৩) রা, ওয়াক্বফ অবস্থায় সাকিন এবং তার আগের অক্ষরে যের হইলে বারিক করিয়া পড়িতে হয়। যথা:- مدكر

(৪) রা, ওয়াক্বফ অবস্থায় সাকিন, এর আগের অক্ষর সাকিন এবং তার আগের অক্ষরে যের হইলে রা, বারিক করিয়া পড়িতে হয়। যথা:- ذِي الذِّكْرِ

(৫) রা, ওয়াক্বফ অবস্থায় সাকিন তার আগের অক্ষর ইয়া সাকিন হইলে বারিক করিয়া পড়িতে হয়। যথা:- خبيْرً – سيْرُ

(সূত্র: তালিমুল হুফফাজ-৭,৮)

About Admin

আমার নাম: এইচ.এম.জামাদিউল ইসলাম ঠিকানা: বালাগঞ্জ,সিলেট। আমি কওমি মাদ্রাসায় কোরাআনের খেদমত করতেছি, পাশাপাশি MuslimBD24.Com সাইটের ডিজাইনার (Editor) ও সম্পাদক এর দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি। অনলাইন সম্পর্কে মোটামুটি জ্ঞান থাকায়, তাই সময় পেলে দ্বীন ইসলাম প্রচারের সার্থে দ্বীন ইসলাম নিয়ে কিছু লেখালেখি করি। যাতে করে অনলাইনেও ইসলামিক জ্ঞান সম্পর্কে জ্ঞানহীন মানুষ, ইসলামিক জ্ঞান সহজে অর্জন করতে পারে। একজন মানুষ জন্মের পর থেকে মৃত্যু পর্যন্ত নিজের জীবনকে ইসলামের পথে চালাতে গেলে ইসলাম সম্পর্কে যে জ্ঞান অর্জন করার দরকার, ইনশা-আল্লাহ! এই ওয়েব সাইটে মোটামুটি সেই জ্ঞান অর্জন করতে পারবে। যদি সব সময় সাইটের সাথে থাকে। আর এই সাইটটি হল একটি ইসলামিক ওয়েব সাইট । এ সাইটে শুধু দ্বীন ইসলাম নিয়ে লেখালেখি হবে। আল্লাহ তায়ালার কাছে এই কামনা করি যে, আমরা সবাইকে বেশী বেশী করে ইসলামিক জ্ঞান শিখার ও শিখানোর তাওফিক দান করুন, আমিন।

Check Also

মদ কাকে বলে ও মদের বিস্তারিত আলোচনা

মদ কাকে বলে ও মদের বিস্তারিত আলোচনা

(মুসলিমবিডি২৪ ডটকম) প্রশ্ন:- মদ অর্থ কি ? উত্তর:- মদ অর্থ আওয়াজ কে টানিয়া পড়া। প্রশ্ন:- …

4 comments

  1. আসসালামুআলাইকু।
    ভাই একটি প্রশ্ন কাসরায়ে আরযি কাকে বলে এবং আসলি যের কাকে বলে,???
    উত্তর পাবার আশাবাদী হয়ে আছি।

  2. ওয়ালাইকুমুস সালাম, জনাব আপনার প্রশ্নের উত্তর আশা করি ২৪ ঘন্টার ভিতরে পেয়ে যাবেন। আল্লাহ যেন তাওফিক দান করেন আমাকে আপনার মর্জি মত প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার, এই কামনা করি। সাইটের সাথে থাকুন।

    • জনাব আপনার প্রশ্নের উত্তর: কাসরায়ে আরযী অর্থ হল আরযী যের অর্থাৎ অস্থায়ী যের,যের এর আরেক নাম কাসরা (যেরকে আরবীতে কাসরা বলে। আরযী যের হল কারণবশত কোন কোন হরকত বিহীন অক্ষরকে অস্থায়ী যের যুক্ত করে পড়তে হয়। উহাকে আরযী (অস্থায়ী) যের বা কাসরায়ে আরযী বলে।

      আর আসলী যের হল: মূলত (আসল) যের (যা সব সময় আছেও থাকবে) উহাকে আসলী যের বা কাসরায়ে আসলীও বলে।
      না বুঝলে বলবেন, সাইটের সাথে থাকার জন্য অনেক অনেক মোবারকবাদ।

Leave a Reply

Powered by

Hosted By ShareWebHost