Breaking News
Home / ইসলাম ধর্ম / জনৈক মুচির চোখে দেখা কবরের আযাব

জনৈক মুচির চোখে দেখা কবরের আযাব

(মুসলিমবিডি২৪ডটকম)

জনৈক মুচির চোঁখে দেখা কবরের আযাব

একজন অন্ধ হাফেজ, মুচি এবং কবরে দাফনকৃত কয়েক হাজার টাকা

━━━━━━ • ✿ • ━━━━━━

 

রাসূল (ﷺ)-এর একটি হাদিছে রয়েছে, কেউ যদি সোনা-রূপার মালিক হয় এবং তার যাকাত আদায় না করে

তবে সোনা-রূপাকে জাহান্ের আগুনে গরম করে সেই ব্যক্তির উরুতে, কোমরে এবং কপালে দাগ দেওয়া হবে।

এরকম একটা ঘটনা ঘটেছে পাকিস্তানের শেখপুরা ায়

 

এক যুবক তার খালার বাড়িতে গিয়েছিলো। খালার ঘরের কাছে ছিলো এক মুচির দোকান। মুচি ছিল মিশুক প্রকৃতির লোক।

বাজারে যাওয়া আসার পথে যুবকের সাথে মুচির আলাপ পরিচয়। সেই যুবক মাঝে মধ্যে মুচির দোকানে বসতো।

দুই চার দিন বসার পর যুবক লক্ষ্য করলো, সেই মুচি বিশ পঁচিশ মিনিট পরপর তার পাশে রাখা একটি পানির পাত্রে হাত ভিজিয়ে নেয়।

যুবক প্রথমে ভেবেছিলো, জুতো সেলাইয়ের চামড়া নরম জন্য এরকম করে।

তাছাড়া আঙ্গুল ডুবানোর সময় শোঁ করে এমন শব্দ হয়, গরম লোহা পানিতে ডুবানোর সময় যেমন শব্দ হয়ে থাকে।

 

যুবক জানায়, মুচিকে আমি আঙ্গুল পানিতে ডুবানোর কারণ জিজ্ঞাসা করায় সে এড়িয়ে যেতে চাইলো।

বারবার অনুরোধ করায় সে জানালো, আমার মহল্লায় একজন অন্ধ হাফেজ থাো।

সেই হাফেজ আমার নিকট টাকা-পয়সা আমানত হিসাবে জমা রাখতো।

কিছু দিন পর হাফেজকে আসতে না দেখে খবর নিয়ে জানলাম হাফেজ ভীষণ । আমি তাকে দেখতে গেলাম।

জিজ্ঞাসা করলাম, আপনি তো মরে যাচ্ছেন কিন্তু আপনার টাকা কি করবো?

হাফেজ বললো, তুমি টাকা তোমার কাছে রাখ। যদি আমি মরে যাই তবে কবর দেওয়ার সময় টাকার থলে আমার মাথার কাছে রেখে দিও।

 

হাফেজ পরদিন মারা গেল। তার দাফন কাজে আমি অংশ নিলাম এবং তার কথা মত টাকার থলে মাথার কাছে রেখে দিলাম।

গভীর রাতে চিন্তা করলাম, কবরে টাকা রাখায় কোন নাই, খামাখা উইপোকায় খেয়ে ফেলবে।

আমি তো হাফেজের শেষ অনুযায়ী তার ের পাশে টাকা রেখে দিয়েছি। এখন যদি বের করে আনি কোন ক্ষতি হবে না।

এরকম চিন্তা করার পর টর্চ এবং কোদাল নিয়ে কবরস্থানে গেলাম এবং কবর খনন করলাম।

লাশের উপর টর্চ জ্বালিয়ে দেখি মুখ বন্ধ করা থলে এক পাশে খালি পড়ে আছে।

থলের ভিতর রাখা টাকা হাফেজের দেহের উপর বিশেষভাবে ছড়িয়ে রাখা হয়েছে। আমি কবর বন্ধ করে চলে আসতে চাইলাম।

হঠাৎ মনে হইলো, এতো কষ্ট করে যখন কবর খনন করেছি অন্তত: একটা নোট নিয়ে যাই।

একথা ভেবে ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি একটি নোটে লাগানোর সাথে সাথে মনে হল, আমার হাতে বিষাক্ত সাপ দংশন করেছে।

ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলে অস্বাভাবিক জ্বালাপোড়া শুরু হল। আমি হাত টেনে নিয়ে তাড়াতাড়ি কবর বন্ধ করে ঘরে ফিরে গেলাম।

 

ঘরে ফিরার পর কঠিন অসুখ দেখা দিল। সুস্থ হওয়ার পরও ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলে জ্বালাপোড়ার যন্ত্রণা ভালো হল না।

চিকিৎসায় বহু টাকা ব্যয় করেছি। তবে আঙ্গুল পানিতে ডোবালে শোঁ করে শব্দ হওয়ার পর কিছুটা আরাম অনুভব করি। দিনে রাতে সব সময় আঙ্গুল জ্বলতে থাকে।

 

এই ঘটনা শ্রবণকারী যুবক বললো, আমি মুচির ডান হাতের আঙ্গুলি ধরে দেখলাম, আঙ্গুল ভীষণ গরম।

যেন আগুন ছুঁয়েছি এরকম মনে হল। তার আঙ্গুল ছোঁয়ার পর আমার হাতও দীর্ঘ সময় জ্বলতে লাগলো।

বিস্ময়কর এ ঘটনায় আমি প্রভাবিত হলাম। আমাদেরকে কবরের আযাব থেকে রক্ষা করুন।

 

উৎসঃ চোখে দেখা কবরের আযাব | পৃষ্ঠা-৪১

━━━━━━━━⊱✿⊰━━━━━━━

নিত্য প্র়োজনীয় ইলেট্রিক ও কসমেটিক পণ্য এবং খাঁটি চাকের নিতে আজই যোগাযোগ করুন।

ড্রিম স্টোরের পণ্য নিন

About আবদুল্লাহ আফজাল

হাফিজ মাওঃ মুহাম্মাদ আব্দুল্লাহ আফজাল। ২০১২ সনে হিফজ সম্পন্ন করেন। উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন২০১৬ সনে। দাওরায়ে হাদিস (মাস্টার্স) সম্পন্ন করেন ২০২০ সনে। ঠিকানা: বালাগঞ্জ, সিলেট। মোবাইল নাম্বার: 9696521460 ইমেইল:hafijafjal601@gmail.com সকল আপডেট পেতে এবং ওয়েবসাইটে লিখা পাঠাতে ফেসবুক পেজ?MD AFJALツ ফলো করুন।

Check Also

শবে বরাত

শবে বরাতে কোন বাড়াবাড়ি নেই

মুসলিমবিডি২৪ডটকম মা বাইনাল ইফরাত ওয়াত তাফরীত জামেউল উলুম মুফতী আবুল কালাম যাকারিয়া -রাহিমাহুল্লাহ লাইলাতুল বারাআত …

Powered by

Hosted By ShareWebHost