Home / জরুরী মাসাইল / কবর জিয়ারত

কবর জিয়ারত

(মুসলিমবিডি২৪ডটকম)

কবর জিয়ারত

কবর জিয়ারত করা জায়িয আছে। এর  জন্য মু্তাহাব দিন হলো বৃহষ্পতিবার, না পারলে শুক্রবার অন্যথায় শনিবার। তবে এই তিন

দিনের মধ্যে শুক্রবার দিনই সর্বোত্তম। (ফাতওয়ায়ে শামী 3/150)

রাতে বা দিনে যে কোনো সময় কবর জিয়ারত করতে যাওয়া জায়িয। কোনো অসুবিধা নেই। কেননা হাদি শরিফে মুতলক ভাবে

জিয়ারতের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। েখানে রাত দিন কিছুই বলা হয়নি। (ফাতওয়ায়ে দারুল উলূম 5/453)

কবরের পাশে ঁয়ে কুরআন শরিফ তেলাওয়াত করা জায়িয। যেমন: ের বিভিন্ন ূরা; সূরা ইয়াসিন, সূরা মূলক, সূরা

তাকাূর, ইত্যাদি। এর দ্বারা মৃত ব্যক্তির আযাব প্রশমিত হয়। (আহসানুল ফাতওয়া 4/186)

আরও পড়ুন:-

আলেমদের কথার বিরোধীতা করলে কবরে কি কি শাস্তি হতে পারে
পস্রাবের ছিঠা থেকে না বাচায় কবরে ভয়াবহ শাস্তি
কবরে রাখার পরও জীবীত ছিলেন যিনি

About Muhammad Abdullah

আমি মাওলানা মোঃ আব্দুল্লাহ। 15ই এপ্রিল 1994 ঈসায়ি রোজ শুক্রবার মৌলভীবাজার জেলার হামরকোনায়( দাউদপুর) জন্মগ্রহণ করি। শিক্ষা জীবনের শুরুটা প্রাথমিক বিদ্যালয় দিয়ে হলেও 4 বছরের মাথায় ইসলামিক শিক্ষা অর্জনের লক্ষ্যে নিজ উদ্যোগে মাদ্রাসায় ভর্তি হই! আলহামদুলিল্লাহ! সর্বশেষ 2017 ঈসায়ি কওমি মাদ্রাসার উচ্চতর ডিগ্রী মাস্টার্স (দাওরায়ে হাদিস) হযরত শাহ সুলতান রহ. মাদ্রাসা থেকে আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল ক্বওমিয়ার মাধ্যমে সম্পন্ন করি! নিজে যা কিছু জেনেছি তা লিখনীর মাধ্যমে মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে এবং আমৃত্যু ইসলাম ও মানবতার সম্পর্কে জানতে ও জানাতে এই সাইটের সাথে সংযুক্ত হয়েছি! আল্লাহ আমাকে ও সবাইকে কবুল করুন।আমিন!!!

Check Also

ঔষধ খেয়ে হায়েয ও নেফাস বন্ধ করার বিধান

ঔষধ খেয়ে হায়েয ও নেফাস বন্ধ করার বিধান

(মুসলিমবিডি২৪ডটকম) ঔষধ খেয়ে হায়েয নেফাস বন্ধ করা যাবে কি প্রশ্নঃ ঔষধ খেয়ে হায়েজ (মাসিক) ও …

Powered by

Hosted By ShareWebHost