Breaking News
Home / ইতিহাস / বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনের অকুতোভয় বীর সৈনিক টিপু সুলতানঃপর্ব২

বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনের অকুতোভয় বীর সৈনিক টিপু সুলতানঃপর্ব২

(মুসলিমবিডি২৪ডটকম)

বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনের অকুতোভয় বীর সৈনিক টিপু সুলতান

(পূর্ববর্তী অংশের পর থেকে)

টিপু সুলতানকে নিহত করার পর ইংরেজদের পথের কাঁটা অনেকটাই দূর হয়।তখন ইংরেজরা মনে করল তাদের ভবিষ্যৎ খুবই উজ্জ্বল।

এর প্রমাণ পাওয়া যায় যুদ্ধের প্রধান নায়ক মর্নিংটনকে ১৭ই মে ১৭৯৯ তারিখে প্রধান বিচারপতির sir jhon anstruther এর লিখিত চিঠি থেকে।

তিনি তার চিঠিতে লিখেন

It is with the most sincere satisfaction &heartfelt that I congratulate you upon the most

Brilliant & glorious event which ever occurred in our Indian history

টিপু সুলতান আজ আমাদের মাঝে নেই।কিন্তু রেখে গেছেন এক অনবদ্য ইতিহাস।

তার সুত্র ধরে যুগ যুগ ধরে উপমহাদেশের মানুষ বিভিন্ন আগ্রাসী শক্তির মোকাবেলা করেছে।

তাই আজকে যখনই একটি নিরব ভাবে আমার মুক্ত ছোট্ট ভূখণ্ড বাংলার প্রতি ইঞ্চি মাটির দিকে তাকাই,

তখনই শুনতে পাই তার বিদ্রোহী এই মাটির পরতে পরতে লেগে থাকা ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তের আহাজারি।

যখন দৃষ্টি পরে লাল সবুজের রক্তিম পতাকার উপর তখন দেখতে পাই শহীদদের মলিন বদনখানী।

এমনি করে শহীদ তিতুর কবরের পাশে দাড়ালে শুনতে পাই তার বিদ্রোহী আত্মার আর্তনাদ।

টিপুর জিবনিতিহাস পড়লে চোখে ভেসে ওঠে টিপুর প্রতিচ্ছবি।

প্রিয় পাঠকগণ!

একটু সজাগ হোন!! কান খাড়া করে একটু শুনার চেষ্টা করুন,এই ভূখণ্ডে ত্রিশ লক্ষ শহীদের আহাজারি।

যেই দেশের স্বাধীনতার জন্য এত রক্ত,এতো মানুষ সমস্ত মায়ার ডোর ছিন্ন করে অকাতরে জীবন বিলিয়ে দিল,

ছিনিয়ে আনল একটি স্বাধীন দেশ,একটি স্বাধীন পতাকা।সেই স্বাধীন দেশ স্বাধীন পতাকা আর এদেশের মসনদ

ও ভাগ্য বিলম্বিত মানুষগুলোকে নিয়ে একটি টালবাহানা করার কারণেই শহীদদের এই কান্না।

তারা এই দেশের সার্বিক পরিস্থিতির দিকে লক্ষ্য করে এ দেশের দামাল ছেলেদেরকে যেন একথাই বলেছেন_

“ওহে বাংলা মায়ের সন্তানেরা তোমরা কি আমাদের রক্তে মাখা ইতিহাস শ্রবন করনি?

দেখনি এই দেশের প্রতি ইঞ্চি মাটির জন্য আমরা কিভাবে জীবন দিলাম?

যদি দেখে কিংবা সেই সব ইতিহাস পড়ে থাকো,তবে এখনও কেন হুংকার দিয়ে রুখে দাড়াও দেশদ্রোহী সেই সব দালালদের বিরুদ্ধে?

যারা কেড়ে নিতে চায় আমাদের এই কষ্টার্জিত স্বাধীনতাকে।ঐ দালালেরা পশ্চিমাদের হাতে বিক্রি করতে চায়,

আমাদের এই দেশটাকে।এই সোনার বাংলার সম্ভাব্য পরাধীনতা রুখতে কিংবা দেশ ধ্বংসের সর্বপ্রকার নীলনকশার

বাস্তবায়ন নস্যাৎ করতে ও সার্বিক পরিস্থিতির শান্তির একমাত্র হাতিয়ার হল  মহাগ্রন্থ আল-কোরআন।

আর এর বাস্তবায়নের জন্য সেই সমস্ত কঠিন হাত প্রয়োজন,যা ছিল শহীদ টিপু সুলতানের,ছিল তিতুমীরের,

ও হারিয়ে যাওয়া সেই সব ৩০লক্ষ শহীদানের।আর যখনই শহীদ হওয়ার পিপাসা নিয়ে জেগে উঠবে

বাংলা মায়ের দামাল ছেলেরা,তখনই সম্ভব হবে এ দেশটাকে  ডিজিটাল রূপে গড়ে তোলা।

লিখেছেনঃ

ক্বারী মাওলানা মিজানুর রহমান সাইফ    শিক্ষকঃদারুল উলুম  সোনাপুর রূপাপুর মাদ্রাসা।

ইমাম ও খতিবঃ সোনাপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ।

About নঙ্গে আসলাফ আফজাল

নঙ্গে আসলাফ আফজাল ১৯৯৫ সালের ১৪ ই এপ্রিল মাসে জন্মগ্রহণ করেন।২০১২ হিফজ সম্পন্ন করেন মাদ্রাসা দাওয়াতুল হক দেওনা,গাজীপুর, ঢাকা থেকে। উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন২০১৬ সনে ইসলামাবাদ মাদ্রাসা বি-বাড়িয়া থেকে। দাওরায়ে হাদিস (মাস্টার্স)সম্পন্ন করেন ২০২০ সনে শাহ সুলতান রহঃ মাদ্রাসা সিলেট থেকে।তিনি লেখা-লেখিতে অভ্যস্ত, বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় তার লিখা প্রকাশ করা হয়েছে। Muslimbd24.com এ তার দৈনিক ইসলামী নিউজ সহ বিভিন্ন লিখা প্রকাশিত হয়। ঠিকানা: বালাগঞ্জ, সিলেট। মোবাইল নাম্বার:০১৭১৪৪৭৫৭৪৫ ইমেইল: hafijafjal601@gmail.com ইউটিউব চ্যানেলঃ https://www.youtube.com/channel/UCocSpOf_nj57ERq1QorZA6A

Check Also

মহিলা মুফতি

শাইখ আলাউদ্দিন সমরকন্দী (রহ.) তুহফাতুল ফুকাহা নামে একটি কিতাব লিখেন। যার ব্যাখ্যা গ্রন্থ রচনা করেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by

Hosted By ShareWebHost