Breaking News
Home / শরীয়তের বিধান / শরীয়তের দৃষ্টিতে শাস্তির বিধান

শরীয়তের দৃষ্টিতে শাস্তির বিধান

(মুসলিমবিডি২৪ডটকম)

শরীয়তে যিনার শাস্তি

ইসলামের বিধান ধনী গরীব সবার জন্য সমান ভাবে পালনীয়।পুর্ববর্তী ধর্মীয় বিধান বিকৃত হওয়ার মুল কারণ হল,

সম্ভ্রান্ত ও জনসাধারণের মধ্যে পার্থক্য সৃষ্টি করা হত।ধর্মীয় ব্যক্তিরা ঘুষ গ্রহণ করে তাতে ইচ্ছা মত পরিবর্তন করত।

সমাজের ধনী লোকেরা ব্যভিচার করলে সামান্য শাস্তি,আর গরীবে করলে শরীয়ত নির্দেশীত শাস্তি প্রয়োগ করা হত।

এভাবে শরীয়তের বিধান ধর্মীয় নেতা ও ধনাঢ্য ব্যক্তিদের খেলনায় পরনিত হয়ে গিয়েছিল।

কিন্তু ইসলাম এই গর্হিত আচরণ চিরতরে বন্ধ করে দেয়।এবং ধনী-গরীব ,সম্ভ্রান্ত-সাধারণ সকলের জন্য সমান বিধান প্রধান করে।

কোন রমনীর সাথে অবৈধ ভাবে যৌন চাহিদা পূরণ করলে,তাকে যিনা বা ব্যভিচার বলে।

কোরআন শরীফে তার শাস্তি নির্ধারিত রয়েছে।বিবাহিত ও অবিবাহিত ব্যক্তির শাস্তি ভিন্ন ভিন্ন।

ব্যবিচারের শাস্তি

হযরত উবাদা ইবনে সামিত রাঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ

তোমরা আমার কাছ থেকে গ্রহন কর।(একথাটি তিনবার বললেন) যে নিশ্চয়ই আল্লাহ তাআলা মহিলাদের জন্য

একটি পথ বের করে দিয়েছেন। যদি কোন অবিবাহিত পুরুষ কোন কুমারী (অবিবাহিত) নারীর সহিত ব্যভিচার করে,

তবে তাকে একশত বেত্রাঘাত কর এবং এক বছরের জন্য নির্বাসন (কারাগারে বন্দী) করে দাও।

আর যদি বিবাহিত ব্যক্তি কোন বিবাহিতা নারীর সাথে ব্যভিচারে লিপ্ত হয়, তবে তাদেরকে প্রথমে ১০০টি বেত্রাঘাত,পরে রজম করবে।

রজম এর পরিচয়

বিবাহিত ব্যক্তি ব্যভিচারে লিপ্ত হলে,তাকে শরিয়ত কর্তৃক শাস্তি প্রয়োগ করতে হয়। আর তা হলঃ

যদি পুরুষ হয় তবে তাকে কোন উচু স্থানে রেখে পাথর নিক্ষেপ করে হত্যা করা।আর যদি নারী হয় তবে তাকে,

বুক পর্যন্ত মাটির নিচে রেখে তারপর পাথর মেরে হত্যা করাকে  রজম বলে।

শাস্তি প্রয়োগের স্বীকারোক্তি প্রয়োজন

আবু হুরায়রা রাঃ থেকে বর্ণিতঃ তিনি বলেন,মুসলমানদের মধ্য হতে এক ব্যক্তি রাসুল সাঃ এর নিকট আসলেন।

তখন তিনি মসজিদের মধ্যে ছিলেন। সে তখন উচ্চস্বরে বলল,হে আল্লাহর রাসূল আমি ব্যভিচার করেছি।

রাসুল তখন তার থেকে মুখ মুবারক ফিরিয়ে নিলেন। ঐ ব্যক্তি রাসুল সাঃ যে দিকে চেহারা মুবারক ফিরিয়েছেন,

সে দিকে গিয়ে আবারও স্বীকারোক্তি বাক্য উচ্চারণ করল।এরকম চার দিকে তিনি চেহারা মুবারক ফিরালেন,

ঐ ব্যক্তি চারও দিকে গিয়ে স্বীকারোক্তি মুলক বাক্য উচ্চারণ করলেন।

এরপর রাসুল সাঃ বললেন,তোমার মধ্যে কি পাগলামী আছে??সে বলল না।তখন রাসুল সাঃ তাকে বললেন তুমি কি বিবাহিত?? সে বলল,হ্যা।

তখন রাসুল সাঃ উপস্থিত সাহাবীগণকে নির্দেশ দিলেন, তাকে রজম করতে।তখন  তারা তাকে রজম করে হত্যা করেন।

তথ্য সুত্রঃ

সহীহুল মুসলিম শরীফের অদ্বিতীয় শরাহ “ইযাহুল মুসলিম” থেকে সংগৃহীত।

About নঙ্গে আসলাফ আফজাল

আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআতের অনুসারী।উলামায়ে দেওবন্দের সমর্থক। হক্কানী আলেম-উলামার পক্ষে দেশী বা বিদেশী বিদআতি ও বাতিল ফেরকার বিপক্ষে।নঙ্গে আসলাফ হাফিজ.মাওলানা .আফজালুর রহমান। ঠিকানা: বালাগঞ্জ, সিলেট। মোবাইল নাম্বার:০১৭১৪৪৭৫৭৪৫ ইমেইল: hafijafjal601@gmail.com ইউটিউব চ্যানেলঃ https://www.youtube.com/channel/UCocSpOf_nj57ERq1QorZA6A

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by themekiller.com